ডিপ্লোমা ইন মেকানিকাল ইঞ্জিনিয়ারিং / টেকনোলোজি (৪ বছর) । পাঠ্যসূচি । পলিটেকনিক । বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ড | মেকানিক্যাল গুরুকুল

ডিপ্লোমা ইন মেকানিকাল ইঞ্জিনিয়ারিং,গুরুকুল | Deploma in Mechanical Engineering, Gurukulমেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং বা যন্ত্রকৌশল পৃথিবীর বৃহত্তম বা বিস্তৃত ইঞ্জিনিয়ারিং ক্ষেত্র।মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং কে বলা হয মাদার অফ ইঞ্জিনিয়ারিং।ডিপ্লোমা-ইন-মেকানিক্যাল-ইঞ্জিনিয়ারিং কোর্সটি বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের (বাকাশিবো) অধীনে পরিচালিত ইঞ্জিনিয়ারিং কোর্সগুলোর অন্তর্ভুক্ত।বাংলাদেশের বর্তমান প্রেক্ষাপটে কর্মক্ষেত্রে এই কোর্সটির ব্যাপক চাহিদা রয়েছে ।বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের(বাকাশিবো) পাঠ্যক্রম অনুযায়ী পাঠদান করা হয় এবং উক্ত বোর্ড প্রদত্ত সার্টিফিকেট প্রদান করা হয়। সাসেগ-গুরুকুল শিক্ষা পরিবারের বাংলাদেশের কয়েকটি জেলার গুরুকুলে এই কোর্সটি পরিচালিত হচ্ছে।

কোর্সের উদ্দেশ্য :

শিল্পায়নের এই যুগে বিশ্বের উন্নত দেশগুলোর সাথে তাল মিলিয়ে বাংলাদেশকে এগিয়ে নিতে কারিগরি শিক্ষার কোন বিকল্প নেই। ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে দেশে ২০২১ সালের মধ্যে কারিগরি শিক্ষার হার ৪ খেকে ২০ শতাংশে উন্নীত করতে হবে। সেই লক্ষ্যেই কারিগরি শিক্ষাবোর্ডের অধীনে সহায়ক প্রতিষ্ঠান হিসাবে সাসেগ-গুরুকুল শিক্ষা পরিবারের একটি শাখা কামরুল ইসলাম সিদ্দিক ইন্সটিটিউট প্রতিষ্ঠিত হয়েছে । এখানে ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের শাখাগুলোর মধ্যে ইলেকট্রিক্যাল বিভাগ অন্যতম । বর্তমানে বাংলাদেশের প্রেক্ষাপট হিসাব করলে দেখা যায় মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারদের চাহিদা সবচেয়ে বেশি যেটি আমরা প্রকাশিত চাকুরীর বিভিন্ন সার্কুলার গুলো লক্ষ্য করলেই দেখতে পাই । তাই এই চাহিদা পূরণের মাধ্যমে নিজেকে ও দেশের উন্নতির স্বার্থে শিক্ষাথীদেরকে ৪ বছর মেয়াদী মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং কোর্সটি এখানে পড়ানো হয় ।

 কর্মক্ষেত্র:

একমাত্র মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিংগণের সকল ক্ষেত্রে পেশার সুযোগ রয়েছে। সেগুলো হলো : পাওয়ার প্লান্ট, পিডিবি,সিমেন্ট ইন্ড্রাস্টি,সার কারখানা, অটোমোবাইল,পল্লী বিদ্যুৎ, ডেসকো, ওয়াসা, গ্যাসফিল্ড,জাহাজ নির্মাণ শিল্প, পেট্রোলিয়াম জাত পণ্য (লুব অয়েল,পেট্রোল,ডিজেল),রেলওয়ে,বিমান,নবায়নযোগ্য শক্তি, মেকানিক্যাল পন্য সামগ্রী প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান সমূহ , সরকারী ও বেসরকারী পলিটেকনিক ইন্সটিটিউট সমূহ, সিটি কর্পোরেশন,পৌরসভা, ভোকেশনাল স্কুল, টিটিসি, টিএসসি, সৌর বিদ্যুৎ ,পরমানু গবেষনা কেন্দ্র,শিল্প-কারখানা, গার্মেন্টস ইন্ডাষ্ট্রি ইত্যাদি সহ আরো অনেক সরকারী/বেসরকারী প্রতিষ্ঠানে উপ-সহকারী প্রকৌশলী হিসেবে চাকুরীর সুবিধা রয়েছে।

 

একজন মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারের দায়িত্ব:

মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ার ছোট পার্টস থেকে শুরু করে অনেক বড় মেশিন,যন্ত্রপাতি বা যানবাহন ডিজাইন ও সেই পণ্য উৱপাদনের পুরো পদ্ধতিকে অধিক কর্মক্ষম করার জন্য কাজ করে থাকেন।তারা একটি পণ্য তৈরির সকল পর্যায়ে(গবেষণা,নকশা,উতপাদন,ইনস্টলেশন এবং চূড়ান্ত চালু) কাজ করতে পারেন।তাদের কাজগুলো সাধারণত নিম্নরূপ:

-আর্থিকভাবে সাশ্রয়ী,নিরাপদ ও টেকসই সরঞ্জাম ডিজাইন ও তৈরি করা।

-অন্যান্য ইঞ্জিনিয়ারদের সাথে আলোচনা করে কোন প্রজেক্টের জন্য প্রয়োজনীয় দিকগুলো বাছাই করা।

-তাত্বিক ডিজাইনের কার্যকারিতা জানার জন্য সিমুলেশন করা ও সেই অনুযায়ী ডিজাইনে প্রয়োজনীয় পরিবর্তন আনা।

-পণ্য সম্পর্কিত সম্যসা সমাধানের জন্য উতপাদন বিভাগের লোকজন,সরবরাহকারী এবং গ্রাহকদের সাথে আলোচনা করা।

-প্রকৌশল ও অন্যান্য খাতে পেশাদারদের সাথে কাজ করা।

-যন্ত্রপাতি মেইনটেনেস্নের দায়িত্ব পালন করা।

ভর্তির যোগ্যতা : 

মেকানিক্যাল ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারিং এ ভর্তি হতে হলে উক্ত শিক্ষার্থীকে কমপক্ষে এস,এস,সি পাশ হতে হবে। প্রাখীর্কে সর্বোচ্চ ৮ বছর আগে এস.এস.সি/দাখিল/ভোকেশনাল সমমানের পরীক্ষায় যে কোন বিভাগ হতে নূন্যতম জি.পি.এ ২.৫০ পেয়ে উত্তীর্ণ হতে হবে।

ভর্তির সময় প্রয়োজনীয় কাগজপত্র:

-এস.এস.সি. মূল নম্বরপত্র ও ফটোকপি

-রেজিস্ট্রেশন ফরমের ফটোকপি

-ভর্তি ইচ্ছুক শিক্ষার্থীর ৮ কপি ছবি (৪ কপি পাসপোর্ট,৪ কপি স্ট্যাম্প)

 

কোর্স স্ট্রাকচার :

শুরুতে এই কোর্সটির মেয়াদ ছিল ৩ বছর।আরও আধুনিক এবং যুগোপযোগী করার জন্য বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ড ৪ বছর মেয়াদে উত্তীর্ণ করা হয়েছে।

বর্তমানে কোর্স স্ট্রাকচার;

-তিন বছর ৬ মাস একাডেমিক কোর্স (৬ মাস মেয়াদী ৮টি সেমিস্টার)।

-বাকী ৬ মাস একাডেমিক কোর্স (ট্রেড সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানে)।

অর্থাৎ ৪ বছরে মোট ৮টি সেমিস্টার পড়ানো হয়। টোটাল ক্রেডিট ১০১।

টোটাল সাবজেক্ট=৫০টি

টোটাল মার্ক=৭৮৫০

 

কোর্স কারিকুলাম:

ডিপ্রোমা ইন মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং কোর্সের শিক্ষার্থীরা দৈনিন্দিন জীবনে মেকানিক্যাল প্রভাব,বিভিন্ন প্রকারমেশিন,মেশিন টুলস, উন্নত প্রযুক্তির ওয়েল্ডিং ও এর ব্যবহার, বিভিন্ন প্রকার মেজারিং ইন্সট্রুমেন্ট,মেশিন ডিজাইন, সম্প্রতি সময়ে বাংলাদেশে ব্যবহৃত নিউমেরিক  এবং নানামূখী আবিস্কার সম্পর্কে স্পষ্ট ধারনা পায়। তাত্বিক ক্লাসের পাশাপাশি শিক্ষাথীর্দের নিয়মিত ব্যবহারিক ক্লাস গ্রহণ করা হয় যাতে শিক্ষার্থীরা কর্মমূখী জ্ঞানলাভ ও দক্ষ হয়ে গড়ে উঠতে পারে। এছাড়া তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তিবিষয়ক প্রশিক্ষন দেয়া হয় যাতে বর্তমানে পেক্ষাপটের সাথে তাল মিলিয়ে তা নিজেকে প্রতিষ্টিত করতে পারে।

159 credit (Total 7950 Marks) .Every student must successfully complete the following list of courses.

 

1st Semester

  • Engineering Drawing (61011 )
  • Bangla (65711 )
  • Physical Education & Life Skill Development (65812)
  • Mathematics –I (65911)
  • Chemistry (65913)
  • Electrical Engineering Fundamentals (66712)
  • Mechanical Engineering Materials (67013)

 

2nd Semester

  • Advanced Mechanical Engineering Drawing (67021)
  • Machine Shop Practice -1 (67022)
  • Mechanical Workshop Practice (67023)
  • English (65712)
  • Mathematics -2 (65921)
  • Physics -1 (65912)
  • Social Science (65811)

 

3rd Semester

  • Machine Shop Practice-2 (67031)
  • Electronic Engineering Fundamentals (66822)
  • Communicative English (65722)
  • Mathematics -3 (65931)
  • Physics -2 (65922)
  • Computer Application (66611)
  • Foundry & Pattern Making (67032)

 

4th Semester

  • Engineering Mechanics (67041)
  • Metallurgy (67042)
  • Machine Shop Practice -3 (67043)
  • Programming Essentials (66631)
  • Electrical Circuits & Machines (66743)
  • Environmental Studies (69054)
  • Business Organization & Communication (65841)

 

5th Semester

  • Hydraulics & Hydraulic Machineries (67051)
  • Mechanical Estimating & Costing (67052)
  • Advance Welding -1 (67053)
  • CAD & CAM (67054)
  • Manufacturing Process (67055)
  • Accounting Theory & Practice (65851)

 

6th Semester

  • Thermodynamics & Heat Engine (67061)
  • Mechanical Measurement & Metrology (67062)
  • Plant Engineering (67063)
  • Strength of Materials (67064)
  • Advance Welding -2 (67065)
  • Industrial Management (65852)

 

7th Semester

  • Design of Machine Elements (67071)
  • Tool Design (67072)
  • Heat Treatment of Metal (67073)
  • Mechanical Engineering Project (67074)
  • Production Planning & Control (67075)
  • Mechatronics & PLC (67076)
  • Innovation & Entrepreneurship (65853)

 

 

8th Semester

Sl. no Subject Code Name of the  Subject Credit
1 7081 Industrial Training 6

 

Other related subjects:

 

 

উচ্চ শিক্ষার সুযোগ:-

ডিপ্রোমা ইন মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং কোর্সটি সম্পন্ন করার পর উচ্চ শিক্ষার জন্য রয়েছে বাংলাদেশের স্বনামধন্য সরকারী ও বেসরকারী  প্রতিষ্ঠান ইউনিভার্সিটি অব ইঞ্জিনিয়ারিং এন্ড টেকনোলজি(ডুয়েট)। এছাড়াও রয়েছে ইন্সটিটিউট অব ইঞ্জিনিয়ার্স বাংলাদেশের(আইইবি)এবং বেসরকারী ইউনিভারসিটি থেকে মাত্র ৩ ও ৪ বৎসর মেয়াদী বি.এস.সি ইঞ্জিনিয়ারিং এবং দেশের বাইরে উচ্চ শিক্ষা গ্রহণের সুযোগ।

এই কোর্সে সাসেগ-গুরুকুল বিশেষত্ব:

* বিষয়ভিত্তিক অভিজ্ঞ শিক্ষক দ্বারা পাঠদান।

* সর্বাধুনিক প্রযুক্তি সম্বলিত টেকনোলজি ভিত্তিক ল্যাব সুবিধা।

* মাল্টিমিডিয়া সমৃদ্ধ ক্লাস।

* শতভাগ ক্লাসের নিশ্চয়তা।

* মেধাবী শিক্ষার্থীদের স্কলারশীপের ব্যবস্থা।

* নিয়মিত অভিভাবকদের সাথে যোগাযোগ ও মত বিনিময় সভা।

* টেকনোলজি ভিত্তিক ইন্ডাস্ট্রি ও সুনামধন্য প্রতিষ্ঠান পরিদর্শনের ব্যবস্থা।

* এ+ প্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের কোর্স ফিতে সর্বোচ ৫০% ছাড়।

* মেয়েদের জন্য কোর্স ফিতে  সর্বোচ্চ ৩০% ছাড়।

* শিক্ষার্থীদের প্রাইভেট পড়ানোর প্রয়োজন হয় না।

* ক্লাসের পড়া ক্লাসেই সম্পন্ন করা হয়।

* দূর্বল শিক্ষার্থীদের জন্য অতিরিক্ত ক্লাসের ব্যবস্থা করা।

* সরকারী ও সুনামধন্য প্রতিষ্ঠানে ইন্টার্নির ব্যবস্থা করা।

* তথ্য যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ক প্রশিক্ষন দান।

*জাতীয় দিবসগুলো যথাযথ আনুষ্ঠানিকতার মাধ্যমে পালন।

* বিভিন্ন প্রকার একস্টা কারিকুলাম যেমন: খেলাধুলা, নাচ-গান,বিতর্ক প্রতিযোগিতা,রোভার স্কাউট,ভাষার ব্যবহার, কম্পিউটার, স্বাস্থ্য প্রভুতি বিষয়ে নিয়মিত প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা।

শিক্ষার্থীর ম্যাসেজ :

আমি মো: রিপন হোসেন । সাসেগ-গুরুকুল শিক্ষা পরিবারের অন্তগর্ত কামরুল ইসলাম সিদ্দিক ইন্সটিটিউট এর ২০১৫-২০১৬ সেশনের মেকানিক্যাল ট্রেডের ২য় পর্বের শিক্ষার্থী।এখানে থেকে তাত্বিক পড়ার সাথে ব্যাবহারিক ক্লাস করা হয় পাশাপাশি ইন্ডাস্ট্রি ভ্রমণের মাধ্যমে বাস্তব কর্মজীবনের ধারণা দেওয়া হচ্ছে।কারিগরি শিক্ষাই নিজেকে সমৃদ্ধ করতে এখানে একাডেমিক শিক্ষার পাশাপাশি এক্সট্রা কারিকুলাম একটিভিটির বিশেষ সুযোগ রয়েছে । যার ফলে শিক্ষার্থীর মেধার সঠিক বিকাশে করতে কিই, আই, এস, আই এর বিকল্প নাই।

বিভাগীয় প্রধানের ম্যাসেজ :

কারিগরি শিক্ষার প্রসারের ফলেই পৃথিবী আজ দ্রুত উন্নয়নের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে।বর্তমান সময়ে বহুল আলোচিত বিষয় হচ্ছে শিল্পায়ন।শিল্পায়নের এই যুগে কারিগরি শিক্ষা মানুষের জীবিকা অর্জনের একটি দারুন সুযোগ করে দিয়েছে যা কারিগরি শিক্ষার ব্যপক প্রসার ঘটাতে পারলে জাতীয় জীবনের বেকার সমস্যা থেকে রেহাই পাওয়া সম্ভব হবে। দক্ষ জনশক্তি তৈরী করার অন্যতম অনুষঙ্গ হলো কারিগরি শিক্ষার প্রসার ঘটানো। কারিগরি বৃত্তিমূলকৈ শিক্ষা ও প্রশিক্ষন ব্যবস্থা আমাদের সৃজনশীল দক্ষতা বৃদ্ধির জন্য এক কার্যকর পদ্ধতি যা গ্রহণ করে আমরা দক্ষ ও যোগ্য নাগরিক হতে পারি। বদলে দিতে পারি আমাদের জীবন ধারনের ভাবনা।কারিগরি শিক্ষার মাধ্যমে দারুনভাবে ক্যারিয়ার গড়ার সুযোগ আছে আর এই ক্যারিয়ার গড়তে হলে সাসেগ-গুরুকুল শিক্ষা পরিবারের অন্তভুক্ত প্রতিষ্ঠান কামরুল ইসলাম সিদ্দিক ইন্সটিটিউট,কুষ্টিয়ায় ২০১০ সালে কার্যক্রম শুরু করে। যার আলোকে আজ বিশ্বের দরবারে কামরুল ইসলাম সিদ্দিক ইন্সটিটিউট কারিগরি শিক্ষার প্রাসারে বিশেষ অবদান রেখে চলেছে।

 

মো: মামুন হক

জুনিয়র ইন্সট্যাক্টর (বিভাগীয় প্রধান মেকানিক্যাল)

সাসেগ-গুরুকুল শিক্ষা পরিবার

মোবাইল:০১৮৭৮-০৪৪২০২।

মন্তব্য করুন